West Bengal Class 9 Bengali Suggestion 2023 | নবম শ্রেণীর বাংলা সাজেশন ২০২৩ | নিরুদ্দেশ | প্রেমেন্দ্র মিত্র
Type Here to Get Search Results !

West Bengal Class 9 Bengali Suggestion 2023 | নবম শ্রেণীর বাংলা সাজেশন ২০২৩ | নিরুদ্দেশ | প্রেমেন্দ্র মিত্র

নিরুদ্দেশ
প্রেমেন্দ্র মিত্র

West Bengal Class 9 Bengali Suggestion 2023 | নবম শ্রেণীর বাংলা সাজেশন ২০২৩ | নিরুদ্দেশ | প্রেমেন্দ্র মিত্র
West Bengal Class 9 Bengali Suggestion 2023 | নবম শ্রেণীর বাংলা সাজেশন ২০২৩ | নিরুদ্দেশ | প্রেমেন্দ্র মিত্র

বহু বিকল্প ভিত্তিক প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :


প্রশ্নঃ নিরুদ্দেশ গল্পটির লেখক হলেন -

(ক) নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়

(খ) সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়

(গ) তারকনাথ গঙ্গোপাধ্যায়

(ঘ) প্রেমেন্দ্র মিত্র

উত্তর: (ঘ) প্রেমেন্দ্র মিত্র


প্রশ্ন:সে বিস্মত ভীত কণ্ঠে বললে -

(ক) আপনারা কি আমাকে চিনতে পারছেন না

(খ) দেখুন কিছু মনে করবেন না

(গ) এ তো আমার ফটো

(ঘ) বুঝতে পারছেন না আমি শোভন

উত্তর: (খ) দেখুন কিছু মনে করবেন না


প্রশ্নঃ কাঁচের শার্সির ভেতর দিয়ে বাইরের রাস্তাঘাট কেমন ছিল?

(ক) স্বচ্ছ

(খ) ঝাপসা

(গ) অর্ধস্বচ্ছ

(ঘ) বাস্তব

উত্তর: (খ) ঝাপসা


প্রশ্নঃ 'মনে হইতেছে আমরা যেন'-কি মনে হচ্ছে?

(ক) পৃথিবী ছেড়ে চলে যাচ্ছিল

(খ) ট্র্যাজেডির শিকার

(গ) সমস্ত পৃথিবী হইতে বিচ্ছিন্ন হইয়া গিয়াছি

(ঘ) সম্পূর্ণ একটি কাহিনী শুনছি

উত্তর: (গ) সমস্ত পৃথিবী হইতে বিচ্ছিন্ন হইয়া গিয়াছি


প্রশ্নঃ বাবা কোন সময় ছেলের খোঁজ করতেন?

(ক) খেতে বসার সময়

(খ) অফিস যাবার সময়

(গ) ঘুমোতে যাবার সময়

(ঘ) অফিস থেকে বাড়ি এসে

উত্তর: (ক) খেতে বসার সময়


প্রশ্নঃ নিরুদ্দেশ গল্পের কোন ঋতুর কথা বলা হয়েছে -

(ক) শরৎ

(খ) বসন্ত

(গ) বর্ষা

(ঘ) শীত

উত্তর: (ঘ) শীত


প্রশ্নঃ 'এমন তিনি প্রায়ই ফিরে থাকেন আজকাল'-কোথা থেকে ফিরে থাকেন?

(ক) থিয়েটার দেখে

(খ) খেলা দেখে

(গ) নাটক দেখে

(ঘ) সিনেমা দেখে

উত্তর: (ক) থিয়েটার দেখে


প্রশ্নঃ গল্পকথক এর বাবার নাম কি?

(ক) শোভন

(খ) সোমেশ

(গ) সুমন

(ঘ) ভুবন

উত্তর: (খ) সোমেশ


প্রশ্নঃ শোভন কতদিন বাদে তার বাড়ি ফিরে ছিল -

(ক) প্রায় তিন বছর

(খ) প্রায় দুই বছর

(গ) প্রায় দেড় বছর

(ঘ) প্রায় পাঁচ বছর

উত্তর: (খ) প্রায় দুই বছর


প্রশ্নঃ সকলের দিকে চেয়ে দেখলে -

(ক) সকলে উদ্ভ্রান্ত

(খ) হাঙ্গামা জটিল হচ্ছে

(গ) সকলের দৃষ্টিতে অবিশ্বাস

(ঘ) সকলের চোখে কৌতুক

উত্তর: (গ) সকলের দৃষ্টিতে অবিশ্বাস


প্রশ্নঃ কার হাসি বিশ্বাস করতে কত খেয়ে প্রবৃত্তি হচ্ছিল না,

(ক) খাজাঞ্চির

(খ) শোভনের

(গ) তার বন্ধু সোমেশের

(ঘ) নায়েকের

উত্তর: (গ) তার বন্ধু সোমেশের


প্রশ্নঃ 'তারা ঠিক কঠিন হৃদয় নয়'-তাদের মন কেমন?

(ক) তৈলাক্ত

(খ) সরল

(গ) জটিল

(ঘ) নিলিপ্ত

উত্তর: (ক) তৈলাক্ত


প্রশ্নঃ 'বাবা সন্ধ্যেবেলা অফিস থেকে ফিরে এসে দেখেন'-কি দেখেন?

(ক) মা শয্যাগত

(খ) স্ত্রী অসুস্থ

(গ) প্রবল অশান্তি চলছে

(ঘ) ছেলে ফেরেনি

উত্তর: (ঘ) ছেলে ফেরেনি


প্রশ্নঃ 'মা ধমক দিয়ে বলেন'-কি বলেন বক্তা?

(ক) তুই একেবারেই পীর হয়েছিস

(খ) এত বড় আস্পর্ধা

(গ) কুলাঙ্গার হয়েছিস

(ঘ) তুই থাম। এত আদর ভালো নয়

উত্তর: (ঘ) তুই থাম। এত আদর ভালো নয়


প্রশ্নঃ 'এবার তার স্বরে কাতরতা'-কার স্বরে কাতরতা?

(ক) শোভনের বাবার

(খ) শোভনের

(গ) সোমেশের

(ঘ) শোভনের মায়ের

উত্তর: (খ) শোভনের


প্রশ্নঃ শোভন তার বাড়িতে আসার আগে তার পরিচয় আর কয়জন তাদের বাড়িতে এসেছিল?

(ক) দুজন

(খ) একজন

(গ) চারজন

(ঘ) তিনজন

উত্তর: (ঘ) তিনজন


প্রশ্নঃ "ইনি ভেতরে যেতে চাইছেন!"-কথাটি কার?

(ক) খাজাঞ্চির

(খ) নতুন খাজাঞ্চির

(গ) দারোয়ানের

(ঘ) নায়বের

উত্তর: (ঘ) নায়বের


প্রশ্নঃ দিনটা কেমন ছিলো?

(ক) ভারী গরম

(খ) ভারী ঠান্ডা

(গ) ভারী বৃষ্টি

(ঘ) ভারি বিশ্রী

উত্তর: (ঘ) ভারি বিশ্রী


প্রশ্নঃ 'দিনটা ভারী' -

(ক) বিশ্রী

(খ) মন্দ

(গ) খারাপ

(ঘ) ভালো

উত্তর: (ক) বিশ্রী


প্রশ্নঃ "চেনেন একে"-কথাটি কার?

(ক) খাজাঞ্চির

(খ) নায়েবের

(গ) শোভনের

(ঘ) সোমেশের

উত্তর: (খ) নায়েবের


প্রশ্নঃ "আঃ আর বকাবকি কেন?"-কথাটি কার?

(ক) গল্পকথকের

(খ) বাবার

(গ) মায়ের

(ঘ) শোভনের

উত্তর: (খ) বাবার


প্রশ্নঃ "তুমি জানোনা, এই বিজ্ঞাপনের পেছনে অনেক সত্য কার ট্রাজিডি থাকে।-কথাটি কার?

(ক) শোভনের

(খ) সোমেশের

(গ) গল্পের নিরুদ্দিষ্টের

(ঘ) গল্পকথকের

উত্তর:(খ) সোমেশের


প্রশ্নঃ শোভন কাকে দেখে আশ্বস্ত হয়েছিলেন -

(ক) নতুন খাজাঞ্চিকে

(খ) নায়েবমশাইকে

(গ) বৃদ্ধ খাজাঞ্চিকে

(ঘ) বৃদ্ধ বাবাকে দেখে

উত্তর: (গ) বৃদ্ধ খাজাঞ্চিকে


প্রশ্নঃ "আজকের কাগজে একসঙ্গে_____ নিরুদ্দেশ এর বিজ্ঞাপন"

(ক) ছয় সাতটা

(খ) পাঁচ-পাঁচটা

(গ) সাত সাতটা

(ঘ) সাত-আটটা

উত্তর: (ঘ) সাত সাতটা


প্রশ্নঃ শোভন দুই বছর বাদে যখন বাড়ি বুক ছিল তখন প্রথম কার কাছ থেকে বাধা পায় -

(ক) বৃদ্ধ পিতার কাছে

(খ) পুরনো নায়েবের কাছে

(গ) খাজাঞ্চির কাছে

(ঘ) দারোয়ানের কাছে

উত্তর: (খ) পুরনো নায়েবের কাছে


প্রশ্নঃ 'টেবিলের ওপর দিক থেকে ভদ্রলোক বলেন'-কি বললেন?

(ক) ও বুঝেছি নিরুদ্দেশ

(খ) দিন লিখে দিন

(গ) নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন দেবেন

(ঘ) ছবি দেবেন একটা

উত্তর: (ক) ও বুঝেছি নিরুদ্দেশ


প্রশ্নঃ 'গৃহিণীকে ধমক দিয়ে বললেন'-কি বললেন?

(ক) সুড় সুড় করে ফিরে আসবে

(খ) মিছিমিছি প্যান প্রমান করো না

(গ) ভয় পেয়ো না

(ঘ) চিৎকার করো না

উত্তর: (খ) মিছিমিছি প্যান প্রমান করো না


প্রশ্নঃ 'প্রথমে দেখা যায় মায়ের কাতর অনুরোধ'-মায়ের অনুরোধের কারণ কি?

(ক) তাঁর কর্তব্যবোধ

(খ) ভয়ানক ট্রাজেডি

(গ) নিরুদ্দিষ্ট ছেলেকে ফিরিয়ে আনা

(ঘ) ছেলের কর্তব্যবোধ

উত্তর: (ক) তাঁর কর্তব্যবোধ


প্রশ্নঃ 'এত আমারই ফটো '-কার উক্তি?

(ক) শোভনের

(খ) সোমেনের

(গ) নায়েব মশায়ের

(ঘ) লেখকের

উত্তর: (ঘ) লেখকের


প্রশ্নঃ 'আশ্বস্ত হয়ে বাবা ঘরে ফেরেন।'ঘরে ফিরে দেখেন -

(ক) ছেলে ঘরে এসে হাজির

(খ) ছেলে অনুতপ্ত

(গ) ছেলে বিপদগ্রস্ত

(ঘ) ছেলে ফিরে এসেছে

উত্তর: (ক) ছেলে ঘরে এসে হাজির


প্রশ্নঃ 'এ অশান্তির চেয়ে বনবাস ভালো!'-বলে বাবা কোথায় বেরিয়ে পড়েন?

(ক) কর্মস্থলে

(খ) স্টেশনের দিকে

(গ) বাসস্ট্যান্ডের দিকে

(ঘ) কাগজের অফিসে

উত্তর: (ঘ) কাগজের অফিসে


প্রশ্নঃ 'এক ভদ্রলোক বেছে নিয়ে সাহস করে জিজ্ঞাসা করে - আপনাদের কাগজে এই '-

(ক) ছবি ছাপাতে চাই

(খ) নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন দিতে চাই

(গ) একটা খবর বার করতে চাই

(ঘ) লেখা দিতে চাই

উত্তর: (গ) একটা খবর বার করতে চাই


প্রশ্নঃ 'একটু বিরক্ত স্বরেই বলিলাম'-কি বললেন বক্তা?

(ক) মিছিমিছি আমি একলা বকে মরছি

(খ) যে যায় সে আর ফিরে না

(গ) সত্যকার ট্রাজেডি আছে

(ঘ) আমি অস্বীকার করছি না

উত্তর: (ক) মিছিমিছি আমি একলা বকে মরছি


প্রশ্নঃ 'নিরুদ্দেশ'এর বিজ্ঞাপন দেখে লেখকের -

(ক) হাসি পেত

(খ) আনন্দ হতো

(গ) কান্না পেত

(ঘ) দুঃখ হতো

উত্তর: (ক) হাসি পেত


প্রশ্নঃ নায়েব মশাই হতাশ ভাবে হাতে ভঙ্গি করে বললেন -

(ক) সোমেশ এসেছিল

(খ) সাত দিন আগে শোভন মারা গেছে

(গ) কেমন করে মারা গেল

(ঘ) নাম ধাম পরিচয় পাওয়া সম্ভব হয়নি

উত্তর: (ঘ) নাম ধাম পরিচয় পাওয়া সম্ভব হয়নি


প্রশ্নঃ নিরুদ্দেশ হওয়া ছেলেটির পরিচয় চিহ্ন জড়ুলটির প্রকৃত অবস্থান হল -

(ক) ঘাড়ের দিকে ডান কানের কাছে

(খ) পিঠের শিড়দাঁড়ায় ডানদিকে

(গ) কপালের ডান দিকে

(ঘ) ঘাড়ের দিকে বাম কানের কাছে

উত্তর: (ক) ঘাড়ের দিকে ডান কানের কাছে


প্রশ্নঃ 'সাধারণ একটি বিজ্ঞাপ্তি মাত্র'-কার স্বরে কাতরতা?

(ক) পুরস্কারের পরিমাণ বাড়বে

(খ) সন্ধান দিতে পারলে পুরস্কার পাওয়া যাবে

(গ) পরিচয় চিহ্নিত ঘাড়ের দিকে একটা জড়ুল

(ঘ) পুরস্কার পাওয়া যাবে

উত্তর: (খ) সন্ধান দিতে পারলে পুরস্কার পাওয়া যাবে


প্রশ্নঃ 'আকাশ ও ম্লান পৃথিবী কেমন মৃতের মতন অসাড় হইয়া আছে'-আকাশের রূপ কেমন?

(ক) মেঘাচ্ছন্ন

(খ) রৌদ্রোজ্জ্বল

(গ) মেঘে ঢাকা

(ঘ) জ্যোৎস্নালোকিত

উত্তর: (ক) মেঘাচ্ছন্ন


অতি সংক্ষিপ্ত উত্তর ধর্মী প্রশ্নগুলির উত্তর দাও ঃ 


প্রশ্নঃ শোভন কে জানতো?

উত্তর: সোমেশ শোভনকে জানতো।


প্রশ্ন: ছেলেটি বাড়িতে ফিরে এসেছিল কেন?

উত্তর: ছেলেটি তার গোটা কতক বই নিয়ে যাওয়ার জন্য বাড়িতে ফিরে এসেছিল।


প্রশ্ন: ছেলের নিরুদ্দেশে চলে যাওয়ার পরে মা-র কি অবস্থা হয়?

উত্তর: ছেলে নিরুদেশে চলে যাওয়ার পরে মা খাওয়া বন্ধ করে দেন এবং বিছানা থেকে ওঠেন না।


প্রশ্ন:শোভনের পরিচয় নিয়ে তার বাড়িতে কতজন লোক এসেছিল?

উত্তর: দুজন লোক এসেছিল বাড়িতে।


প্রশ্ন: বাড়ি ফিরে শোভন কি দেখেছিল?

উত্তর: বাড়ি ফিরে শোভন সকলের চোখে অবিশ্বাস দেখছিল।


প্রশ্ন:সোমেশ হঠাৎ এসে পড়ায় কথকের কি সুবিধা হয়েছিল?

উত্তর:সোমেশ হঠাৎ এসে পড়ায় কথকের দুপুর কাটানোর সুবিধা হয়েছিল।


প্রশ্ন:সোমেশ কোথায় এসেছিল?

উত্তর: সোমেশ লোকের বাড়িতে এসেছিল।


প্রশ্ন:বাবা খবরের কাগজে অফিসে কেন দিয়েছিলেন?

উত্তর: বাড়ি থেকে চলে যাওয়া ছেলের জন্য নির্দেশের

 বিজ্ঞাপন দিতে বাবা খবরের কাগজের অফিসে গিয়েছিলে।


প্রশ্ন: খবরের কাগজে কিসের বিজ্ঞাপন বেরিয়েছিল?

উত্তর: খবরের কাগজে সাতটা নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন বেরিয়েছিল।


প্রশ্ন: সোমেশ যে গল্পটি বলেছিল তার মূল্ কথাটি কি?

উত্তর: সোমেশ যে গল্পটি বলেছিল তা শুধু চলে যাওয়া নয়, একটি ছেলের ফিরে আসারও ভয়ঙ্কর ট্রাজেডির কথা।


প্রশ্ন: বাবা ছেলের খোঁজ পাওয়ার জন্য কি করতে গিয়েছিল?

উত্তর: বাবা ছেলের খোঁজ পাওয়ার জন্য খবরের কাগজে বিজ্ঞাপন দিতে গিয়েছিল।


প্রশ্ন: বাবা ছেলেকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বললে মা কি বলেছিল?

উত্তর: বাবা ছেলেকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বললে মা বলেছিলেন যে, খাওয়া-দাওয়ার সময়ে এসব বলা উচিত হয়নি।


প্রশ্ন: বিজ্ঞাপনে শোভনের পরিচয় চিহ্ন কি দেওয়া হয়েছিল?

উত্তর: বিজ্ঞাপনে শোভনের পরিচয় চিহ্ন ছিল ঘাড়ের ডান দিকে কানের কাছে একটি বড় জড়ুল।


প্রশ্ন: ছেলে কোথায় আছে বলে বাবার ধারণা?

উত্তর: ছেলে বন্ধুর বাড়িতেই আছে বলে বাবা মনে করেন।


প্রশ্ন: নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন সম্পর্কে লেখকের এর মন্তব্য কি ছিল?

উত্তর: নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন গুলো দেখলে লেখক এর হাসি পায়, এমনটাই বলেছিলেন তিনি।


প্রশ্ন: নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে বাবা কি লিখতে চেয়েছিলে?

উত্তর: নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে বাবা ছেলেকে ফিরে আসার আবেদন জানাতে চেয়েছিলেন।


প্রশ্ন: ছেলে ফিরে আসার পর মা বাবাকে কি বলেছিলেন?

উত্তর: ছেলে ফিরে আসার পর মা ছেলেকে বকলে বাবা বকতে বারণ করেছিলেন। ঠিক তখনই মা-বাবাকে বলেছিলেন তুমি থামো। এত আদর ভালো নয়।


প্রশ্ন: বাবা গৃহিণীকে ধমক দিয়ে কি বলেছিলে?

উত্তর: বাবা ভীষণ একে ধমক দিয়ে বলেছিলেন,'মিছিমিছি প্যান প্যান করো না, এমন ছেলে যাওয়াই ভালো।'


প্রশ্ন: শোভনের বাবার চেহারার সঙ্গে কিসের সাদৃশ্য দেখিয়েছেন লেখক?

উত্তর:  শোভনের বাবার চেহারার সঙ্গে ঝড়ে ভেঙে পড়া একটি গাছের সাদৃশ্য দেখিয়েছেন লেখক।


প্রশ্ন: বিজ্ঞাপনের শেষ কথাটি কি ছিল?

উত্তর: বিজ্ঞাপনের শেষ কথাটি ছিল এরকম-'শোভন, তোমার মার সঙ্গে আর তোমার বুঝি দেখা হলো না।'


প্রশ্ন: শোভনকে কোন কাজ করার কথা বলেছিলেন নায়েবশাই?

উত্তর: জমিদার বাবুর অনুরোধে টাকার বিনিময়ে শোভন কে মায়ের কাছে তার হারিয়ে যাওয়া ছেলের অভিনয় করার কথা বলেছিলেন নায়েব মশাই।


প্রশ্ন: শোভন কিভাবে মুক্তির স্বাদ পেয়েছিল?

উত্তর: বাড়ির বাইরে হাজারো দুঃখ অসুবিধা তে শোভন হয়রান হয়ে পড়েনি, বরং তার মধ্যেই সে মুক্তির স্বাদ পেয়েছিল।


প্রশ্ন: শোভনের উদ্দেশে শেষে বিজ্ঞাপনটি কি ছিল?

উত্তর: শোভন, তোমার মার সঙ্গে আর তোমার বুঝি দেখা হলো না। তিনি শুধুই তোমার নামে করছেন এখনও।


প্রশ্ন:"পরেরদিন ভয়ানক কান্ড।"ভয়ানক কান্ডটি কি?

উত্তর"ছেলে নিরুদ্দেশ হবার দিন রাত থেকে মা কিছু খায়নি ও পরের দিন মার বিছানা থেকে ওঠার সম্ভাবনা কম।


প্রশ্ন: মা ছেলেকে কোথা থেকে টাকা বার করে দিয়েছিলেন?

উত্তর: মা ছেলেকে লুকোনো পুঁজি থেকে টাকা বার করে দিয়েছিলেন।


প্রশ্ন: গুণধর পুত্র খোকন ঘরে প্রবেশ করেছিল?

উত্তর: বাবার মৌখিক আস্ফালন যখন তীব্র হয়ে উঠেছিল তখন ঐ গুণধর পুত্র ঘরে প্রবেশ করেছিল।


(৩) নিচের ব্যাখ্যাভিত্তিক প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ


প্রশ্নঃ "আমরা কি এতদিন রামযাত্রা বার করেছি!" - কে কেন মন্তব্যটি করেছে?

উত্তরঃ প্রেমেন্দ্র মিত্রের 'নিরুদ্দেশ' গল্পে কোনো-একটি ছেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে তার মা খাওয়া-দাওয়া ত্যাগ করেন এবং বিছানা নেন! বিব্রত বাবা খবরের কাগজের অফিসে গিয়ে হাজির হন এবং সেখানে এক কর্মী ভদ্রলোককে জানান যে তিনি তাদের কাগজে একটা খবর বের করতে চান। তাতে সেই নিরীহ চেহারার ভদ্রলোকটি ব্যঙ্গের সুরে বলেন যে তাদের খবরগুলো বুঝি ছেলেটির বাবার পছন্দ হচ্ছে না। একইসঙ্গে প্রশ্নোপ্ত মন্তব্যটিও করেন তিনি।


প্রশ্নঃ "শোভনকে একটা কাজ করতে হবে।" - কোন্ কাজের কথা বলা হয়েছে?

উত্তরঃ নায়েবমশাই গলার আওয়াজে মিনতি আর হাতে অনেকগুলোটাকার নোট নিয়ে শোভনকে বলেছিলেন এই 'কাজ'-এর কথা তা হল বাড়ির কী মৃতপ্রায়। ছেলের মৃত্যুসংবাদ তিনি শোনেননি। তাই ছেলেকে দেখার আশা নিয়ে তিনি আজও বেঁচে আছেন। শোভনকে তার হারানো ছেলে হয়ে একবার দেখা দিতে হবে, কারণ তার সঙ্গে হারানো ছেলেটির প্রকৃতই মিল আছে।


প্রশ্নঃ "বিজ্ঞাপনের পেছনে অনেক সত্যকার ট্র্যাজিডি থাকে।"—মন্তব্যটি ব্যা করো।

উত্তরঃ প্রেমেন্দ্র মিত্রের 'নিরুদ্দেশ' গল্পে কথক খবরের কাগজের নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনের প্রসঙ্গে বলেন যে এই নিরুদ্দিষ্টরা অনেক সময়ই রাগের মাথায় বা অভিমান করে বাড়ি ছাড়ে, তারপরে কিছুদিন বাদে রাগ আর অভিমান কমলে বাড়ি ফিরেও আসে। কিন্তু বন্ধু সোমেশের মনে হয় বিষয়টি এত সহজনয়। বহু  নিরুদ্দেশের ঘটনার পিছনেই থাকে জীবন থেকে চিরকালের মতো হারিয়ে যাওয়ার ঘটনা। সেসব ক্ষেত্রে হয় ফিরে আসা সম্ভব হয় না, বা ফিরে আসার পথ বন্ধ হয়ে যায়।

প্রশ্নঃ হঠাৎ করে বিজ্ঞাপন বন্ধ হওয়ার কারণ কী ছিল?

উত্তরঃ ছেলের ফিরে না-আসার চূড়ান্ত হতাশা থেকেই বিজ্ঞাপন বন্ধ হয়েছিল, কারণ নিরুদ্দিষ্টের মায়ের শরীর এতটাই খারাপ হয়েছিল যে বিজ্ঞাপন অর্থহীন হয়ে গিয়েছিল।


প্রশ্নঃ  ".... তার উদাসীন মনও বিচলিত হয়ে উঠল।" - এর কারণ কী?

উত্তরঃ যেদিন কাগজে নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন বন্ধ হয়ে গেল সেদিন শোভনের মনও বিচলিত হয়ে উঠল।


প্রশ্নঃ "সে মুখের বেদনাময় বিমূঢ়তা শোভনের বুকে ছুরির মতো বিধল।" - কোন্ মুখের কথা বলা হয়েছে? প্রসঙ্গটি উল্লেখ করো।

উত্তরঃ 'নিরুদ্দেশ' গল্পের উল্লিখিত অংশে শোভনের বৃদ্ধ বাবার মুখের বেদনাময় বিমূঢ়তার কথা বলা হয়েছে।

     বৃদ্ধ নায়েবমশাই যখন নিরুদ্দিষ্ট শোভনকে তারই মৃত্যুসংবাদ শোনাচ্ছিলেন সেইসময় সে তার বাবাকে বাড়ি থেকে বেরোতে দেখে। বাবাকে দেখে তার ঝড়ে ভাঙা গাছের মতোই বিধবস্ত মনে হয়। সকলে কিছু বোঝার আগেই শোভন দৌড়ে ঘর থেকে বের হয়ে যায়৷ 'বাবা' বলে বৃদ্ধকে ডাকে। আর সেই গলার আওয়াজ শুনে বৃদ্ধ থমকে দাঁড়ান। তখন তার প্রতিক্রিয়া উল্লেখ করতে গিয়েই মন্তব্যটি করা হয়েছে।


প্রশ্নঃ "যেন কান পাতলে কাতর আর্তনাদ শোনা যাবে।" - মন্তব্যটি ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ প্রেমেন্দ্র মিত্রের 'নিরুদ্দেশ' গল্পে পুরোনো খবরের কাগজে বহুদিন ধরে প্রকাশিত একটি বিজ্ঞাপনের কথা রয়েছে। বিজ্ঞাপনটি নিরুদ্দেশের। একজন মা কাতরভারের ছেলেকে ফিরে আসার জন্য অনুরোধ করেছেন। সেখানে অস্পষ্ট আড়ষ্ট ভাষায় প্রকাশিত হয়েছে মায়ের মনের আকুলতা।

     একসময়ে সেই আকুলতা মিলিয়ে যায়। এরপর সংবাদপত্রের পৃষ্ঠায় ভেসে ওঠে পিতার কম্পিত, ধীর এবং শান্ত স্বর—যেখানে মার অসুস্থতার কথা জানিয়ে ছেলেকে ফিরে আসতে বলা হয়। এইসব অনুরোধ, আবেদনই আর্তনাদের মতো শোনায়।


প্রশ্নঃ "শোভন এই অবস্থাতে না হেসে পারলে না।" - শোভনের হাসির কারণ কী ছিল?

উত্তরঃ শোভন মা বাবার কাছে যেতে চাইলে নায়েবমশাই তাকে নিবৃত্ত করার জন্য বলেন যে, তাদের কাছে খবর আছে শোভন সাত দিন আগেই মারা গিয়েছে। উদ্ভ্রান্ত শোভন এই কথা শুনেই হেসে ফেলে। সে নিজে সশরীরে উপস্থিত, আর তাকেই কিনা তার মৃত্যুসংবাদ শোনানো হচ্ছে—এই ঘটনা শোভনকে হাসতে বাধ্য করে। কণ্ঠস্বরে বিদ্রুপ মিশিয়ে তাই সে জানতে চায় শোভন কীভাবে মারা গেল।


(৪) নিচের রচনাধর্মী প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ


প্রশ্নঃ 'নিরুদ্দেশ' গল্প অবলম্বনে শোভন চরিত্রটি বিশ্লেষণ করো।

উত্তরঃ প্রেমেন্দ্র মিত্রের 'নিরুদ্দেশ' গল্পে কথকের বন্ধু সৌমেশ যে নিরুদ্দেশ-বিষয়ক উপকাহিনিটি বলেছে তারই প্রধান চরিত্র শোভন।

পরিচয়ঃ শোভন ছিল এক প্রাচীন জমিদার বংশের একমাত্র উত্তরাধিকারী এবং সে জমিদারি ক্ষয়িষ্ণু নয়। অনেক দুর্দিনের ভিতরেও তা নিজেকে রক্ষা করতে সমর্থ হয়েছে। শোভন ছিল ষোলো-সতেরো বছর বয়সের একটি ছেলে, দোহারা গড়ন। নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে তার পরিচয় দিতে গিয়ে বলা হয়েছে যে, ডান কানের কাছে একটি জভুল আছে।

নিরুদ্দেশের কারণঃ সোমেশের কথা থেকে জানা যায় যে, কোনো অভিমান নয়, শোভন বাড়ি ছেড়েছিল সংসারের প্রতি তার আকর্ষণ না থাকার কারণে। পৃথিবীতে এক ধরনের মানুষ আছে যারা কোনো কিছুতেই বাঁধা পড়ে না শোভন ছিল সেরকম মানুষ।

শোভনের ট্র্যাজেডিঃ দুবছর পরে বাড়ি ফিরে এসে শোভন এক অদ্ভুত পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়। বাড়ির পুরোনো নায়েবমশাই কিংবা খাজাঞিমশাই কেউই তাকে চিনতে পারেননি। তাকে বারবাড়িতে থাকতে বলা হয়। শোভনকে শুনতে হয় তার নিজেরই মৃত্যুসংবাদ। এমনকি বৃদ্ধ বাবাও তাকে চিনতে পারেন না। আর সব থেকে ট্র্যাজিক মুহূর্তটি আসে যখন শোভনের হাতে কিছু টাকা দিয়ে নায়েবমশাই বলেন যে তাকে মা-এর সামনে শোভনের ভূমিকায় অভিনয় করতে হবে। আসল পরিচয়কে অস্বীকার করে তাকে একটা মিথ্যা কাহিনির নায়ক করে তোলা হয়।

শোভন এবং সোমেশঃ গল্পের সমাপ্তি এই ইঙ্গিত দিয়ে যায় যে, সোমেশই শোভন। কারণ, সোমেশেরও কানের কাছে জডুল ছিল, আর ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে সাোমেশ জানিয়েছে—"সেই জন্যেই গল্প বানানো সহজ হলো।”

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

2 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.
  1. বাইরে অসরতা যেন আমাদের মনের উপর চাপিয়া ধরিয়াছে ------ মন্তব্যটি ব্যাখ্যা কর

    উত্তরমুছুন

Top Post Ad

LightBlog

Below Post Ad

LightBlog

AdsG

close