Type Here to Get Search Results !

Higher Secondary ABTA Test Paper 2022-23 Geography Page AC 164 Answer

 HS ABTA Test Paper 2022-23 Geography Page AC 164 Answer

hs abta test paper 2022-23 geography page ac 164 answer
hs abta test paper 2022-23 geography page ac 164 answer


1. সঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে লেখো (সকল প্রশ্ন আবশ্যিক) :

(i) অবরোহণের মাত্রা নদীর শক্তি ছাড়া অন্য যে বিষয়ের ওপর নির্ভর করে তা হলো - নদীর স্রোত

(ii) ভূ-ত্বকের উঁচু ও নীচু স্থানের মধ্যে উচ্চতাজনিত ভারসাম্য লাভের অবস্থানকে বলা হয় - সমস্থিতি

(iii) ভৌমজলের চলাচল বা পরিবহনের একটি নিয়ন্ত্রক হলো - অনুশ্রবণ

(iv) সমুদ্র তরঙ্গের ক্ষয়কার্যের ফলে সৃষ্টি হয় - ব্লো হোল

(v) নদীর ক্ষয়চক্রের পরিণত পর্যায়ে সৃষ্টি হয় - পরবর্তী নদী

(vi) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে শান্ত আবহাওয়াবিশিষ্ট অংশকে বলে - চক্ষু

(vii) ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত সৃষ্টি হয় - উষ্ণ সমুদ্রপৃষ্ঠে

(viii) মৌসুমী বায়ুপ্রবাহ হলো একধরনের - সাময়িক বায়ু

(ix) ভারতের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল অবস্থিত - সুন্দরবনে

(x) 'বাস্তুতন্ত্র' শব্দটি সর্বপ্রথম ব্যবহার করেন বিজ্ঞানী - ট্র্যান্সলে

(xi) প্রাকৃতিক বিপর্যয় নয় - এমন ঘটনাটি হলো - মির্থাইল আইসোসায়নাইড গ্যাস দুর্ঘটনা

(xii) স্থানান্তর কৃষি ভারত ও বাংলাদেশে যে নামে পরিচিত তা হলো - ঝুম

(xiii) সারা বছর শাকসবজি চাষকে কী বলে - ফ্লোরি কালচার

(xiv) 'সবুজ বিপ্লব' কথাটি সর্বপ্রথম ব্যবহার করেন - উইলিয়াম এস প্যাড

(xv) নিম্নলিখিত যেটি বিশুদ্ধ কাঁচামালভিত্তিক শিল্প - বস্ত্রবয়ন

(xvi) তথ্যপ্রযুক্তিগত আদান-প্রদানের মাধ্যম হলো - বেতার যন্ত্র

(xvii) পরিবহনের কোন্‌ মাধ্যমকে আধুনিক যুগে উন্নয়নের জীবনরেখা বলে? - সমুদ্রপথ

(xviii) বিশ্বের একটি জনবিরল দেশ হলো - অস্ট্রেলিয়া

(xix) জনবিস্ফোরণ সৃষ্টি হয় - এদের কোনোটিই নয়

(xx) ভারতের 'সিলিকন ভ্যালি' নামে বিখ্যাত শহরটি হলো - ব্যাঙ্গালুরু

(xxi) জলবিন্দু বসতি দেখা যায় - শুষ্ক মরু অঞ্চলে

HS ABTA  Test Paper All Subject Solved : Click Here...

2. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির প্রতিটি সম্পূর্ণ বাক্যে উত্তর দাও (বিকল্প প্রশ্নগুলি লক্ষণীয়) :

(i) মৃত্তিকা পরিলেখের A ও B স্তরকে একত্রে কী বলে?

উত্তরঃ সোলাম

(ii) চুনাপাথরের মেঝে বা কারেন ক্ষেত্র কাকে বলে?

উত্তরঃ চুনাথরগঠিত অঞ্চলে দ্রবণের ফলে অসংখ্য কারেন ও ক্লিন্টস গড়ে উঠলে যে এবড়াখেবড়া ভূপৃষ্ঠ সৃষ্টি হয়, তাকে চুনাপাথরের মেঝে বা কারেন ক্ষেত্র বলে।

অথবা,

প্রতীপ ঘূর্ণবাতের সৃষ্টির ক্ষেত্রে কোন্‌ কোন্‌ বিষয়গুলি গুরুত্বপূর্ণ।

উত্তরঃ আঞ্চলিক অবস্থান, বায়ুর চাপ, বায়ুপ্রবাহের দিক, বায়ুর গতিবেগ, বিস্তৃতি।

(iii) জঙ্গল উদ্ভিদের একটি অভিযোজনগত বৈশিষ্ট্য লেখো।

উত্তরঃ খরা এড়িয়ে চলা

অথবা,

মৃত্তিকাস্থিত পুষ্টিমৌল কী?

উত্তরঃ খনিজ ও জলকে মৃত্তিকাস্থিত পুষ্টিমৌল বলে।

(iv) জিন বৈচিত্র্য সংরক্ষণ কী?

উত্তরঃ উদ্ভিদ ও প্রাণী প্রজাতির রক্ষণাবেক্ষণ, তাদের বিজ্ঞানসম্মত ব্যবহার ও পুনরুদ্ধারকে জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ বলে।

অথবা,

লুপ্তপ্রায় প্রাণী বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ যে সমস্ত প্রাণীদের অস্তিত্ব আজ বিপন্নতার মুখে, যে কোনো দিন তাদের শেষ জীবটি পৃথিবী থেকে হারিয়ে যেতে পারে তাদের লুপ্তপ্রায় প্রাণী বলে। যেমন - রেড পান্ডা, বন্য শুকর, সোনালি হনুমান।

(v) থিংক ট্যাংক কোন্‌ স্তরের কর্মীদের বলা হয়?

উত্তরঃ পঞ্চম স্তর বা অতিনব্য স্তর

অথবা, 

আউটসোর্সিং বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ ইন্টারনেট ব্যবস্থার মাধ্যমে অন্যকোন বা ভিন্ন ভিন্ন প্রতিষ্ঠান ভিন্ন ভিন্ন ধরনের কাজ প্রদান করে তা ফ্রিল্যান্সারদের মাধ্যমে তা করিয়ে নেওয়া। নিজের প্রতিষ্ঠান বাদে অন্য কোন ব্যক্তি অথবা কোন প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে এসব কাজ করানোকেই মূলত আউঈসোর্সিং বলে। যারা আউঈসোর্সিংয়ের কাজ করেন, মূলত তারাই হলেন ফ্রিল্যান্সার।

(vi) কোন অঞ্চলের 'শস্য প্রগাঢ়তা' কীভাবে নির্ণয় করা হয়।

উত্তরঃ মোট কৃষিজমি ও নেট কৃষিজমির অনুপাতকে শস্য প্রগাঢ়তা বলে। অর্থাৎ নির্দিষ্ট একটি বছরে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ জমিতে উৎপন্ন শস্যের সংখ্যা হল শস্য প্রগাঢ়তা ধরিলাম আমার জমির পরিমাণ ১০০০ একর। এক বছরে খারিপ চাষ হয়েছে ৩০০ একর, রবি শস্য হয়েছে ৯০০ একর। অর্থাৎ এক বছরে মোট চাষের পরিমাণ ১২০০ একর। আমার শস্য প্রগাঢ়তা হল ১২০০/১০০০ X ১০০ = ১২০%

সূত্র C1 = (GCA % NCA)X 100

(vii) শুষ্ক কৃষি বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ বার্ষিক ৭৫ সেমির কম বৃষ্টিযুক্ত ও জলসেচের সুবিধাহীন শুষ্ক অঞ্চলে সামান্য বৃষ্টিজলের সাহায্যে খরাসহ্যকারী শস্য চাষের যে কৃষিপ্রণালী তাকে শুষ্ক কৃষি বলে। উত্তর-পশ্চিম ভারতে এই কৃষিপ্রণালী দেখা যায়।

অথবা,

সোনালী চতুর্ভুজ কাকে বলে?

উত্তরঃ সোনালী চতুর্ভুজ ভারতের চারটি মেট্রোপলিটন শহর দিল্লী, মুম্বা্‌ কলকাতা ও চেন্নাইকে ৬ লেন বিশিষ্ট দীর্ঘ সড়কপথ দ্বারা যুক্ত করা হয়েছে। এর দৈর্ঘ্য ৫৮৪৬ কিলোমিটার। চারটি বাহু থাকার কারণে চতুর্ভুজ এবং অর্থনৈতিক বৃদ্ধি ঘটাবে সেই কারণে সোনালী সোনার সাথে তুলনা করা হয়েছে।

(viii) পূর্ববর্তী নদীর সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ প্রবাহপথের উন্থান সত্ত্বেও যেসব নদী নিম্নক্ষয়ের মাধ্যমে তার পূর্বেকার গতিপথ বজায় রাখতে সমর্থ হয় তাদের পূর্ববর্তী নদী বলে। যেমন - সিন্ধু, শতিদ্রু, তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র।

অথবা,

কোন্‌ ধরণের জলনিগর্ম প্রণালীতে জলধারাগুলি পরস্পর সূক্ষ্মকোণে মিলিত হয়।

উত্তরঃ (ক) পিনেট বা চুনট জলনির্গম প্রণালীতে বহুসংখ্যক উপনদী প্রধান নদীর সাথে সূক্ষ্মকোণে মিলিত হয়।

(খ) বৃক্ষরূপী জলনির্গম প্রণালীতে প্রধান নদীর উভয় দিক থেকে উপনদীগুলি সূক্ষ্মকোণে মিলিত হয়।

(ix) আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থায় কৃত্রিম উপগ্রহের ওপর বেশি গুরুত্ব আরোপ করা হয় কেন?

উত্তরঃ যোগাযোগ ব্যবস্থাকে মসৃণ ও নির্ভুল করার জন্য যে সমস্ত কৃত্রিম উপগ্রহগুলি কক্ষপথে স্থাপন করা হয়েছে তারা পৃথিবের বক্রতাকে অতিক্রম করে নির্ভুল সংকেত পাঠাতে সক্ষম। ফলে পৃথিবীপৃষ্ঠে বহু দূরে অবস্থিত দুই বিন্দুর মধ্যে সহজ বা সঠিক যোগাযোগ সম্ভব হয় তাছাড়া সঠিক অক্ষাংশ, দ্রাঘিমা ও উচ্চতা অর্থাৎ অবস্থান নির্দেশ করে।

(x) জনঘনত্ব কাকে বলে?

উত্তরঃ মোট জনসংখ্যাকে মোট জমির পরিমাণ দিয়ে ভাগ করলে পাওয়া যায় - জনঘনত্ব (নির্দিষ্ট সময়ে প্রতি বর্গ কিমিতে কতজন লোক বসবাস করে) ভারতের জনঘনত্ব ২০১১ সালে অনুসারে ৩৮২ জন/বর্গকিমি।

অথবা,

কাম্য জনসংখ্যা বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ জিমারম্যানের মতে মানুষ জমি অনুপাতের আদর্শ অবস্থাই হল কাম্য বা আদর্শ জনসংখ্যা। কাম্য জনসংখ্যা বলতে সেই জনসংখ্যাকে বুঝি যা দেশের কার্যকর জমির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

(xi) সামাজিক নৈকট্য কোন ধরণের জনবসতি গড়ে তোলে?

উত্তরঃ সামাজিক নৈকট্য গোষ্ঠীবদ্ধ বা পিন্ডাকৃতি জনবসতি গড়ে তোলে।

(xii) নেক্রোপলিস কাকে বলে?

উত্তরঃ নেক্রোপলিস পৌর বসতিতে হতশ্রী ধ্বংসাবশেষ অতীতের স্বাক্ষর বহনকারী এমন ভুতুরে বা মৃতের শহরকে নেক্রোপলিস বলে।

অথবা,

পরিকল্পনা অঞ্চলের সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ পরিকল্পনা অঞ্চলে হল সমধর্মী অর্থনৈতিক, ভূ-প্রাকৃতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্যযুক্ত দৈশিক একক, যেখানে নির্দিষ্ট সময়কালে অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য নির্দিষ্ট অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত বা পরিকল্পনা গ্রহণ ও রূপায়ণ করা হয়। সরকার বা স্বশাসিত সংস্থার তত্ত্বাবধানে এই অঞ্চল বিকশিত হয়।

(xiii) মেঘভাঙা বৃষ্টি কী?

উত্তরঃ মেঘ ভাঙা বৃষ্টি এক প্রকারের অপ্রত্যাশিত ও আকস্মিক বৃষ্টি যা হঠাৎ করে সৃষ্টি হয়, যার ফলে হড়পা বান ঘটে। অন্যভাবে বললে মেঘ ভাঙা বৃষ্টি হল - খুব অল্প সময়ের জন্য শিলা ও বজ্রপাতের সমন্বিত অত্যাধিক পরিমাণ বৃষ্টি, যার ফলে ধ্বংসাত্মক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, যেমন - বন্যা, ভূমিধ্বস, হিমানী সম্প্রপাত, কাদাপ্রবাহ ইত্যাদি। 

(xiv) সোয়ালো হোল কাকে বলে?

উত্তরঃ দ্রবণ ক্ষয় বা ভূপৃষ্ঠ ধসে গিয়ে সৃষ্ট ব্যয়র গহ্বর সোয়ালো হোল। কার্স্ট অঞ্চলে দ্রবণ ক্ষয় বা ধসের ফলে ভূপৃষ্ঠে সিঙ্ক হোল অপেক্ষা বড়ো গর্ত উন্মুক্ত গহ্বর সৃষ্টি হয় একে সোয়ালো হোল বলে। এই গর্ত নদী ভূগর্ভে প্রবেশ করে।

অথবা,

জরায়ুজ অঙ্কুরোদ্‌গম কী?

উত্তরঃ লবণাক্ত মৃত্তিকা অঙ্কুরোদগমের উপযোগী নয় বলে। এই মৃত্তিকায় থাকা উদ্ভিদের বীজের অঙ্কুরোদ্গম ফলের মধ্যেই উদ্ভিদের সঙ্গে যুক্ত থাকা অবস্থায় হয়, এই প্রকার অঙ্কুরোদ্গমকে জরায়ুজ অঙ্কুরোদগ্ম বলে। যেমন - সুন্দরী।

HS ABTA  Test Paper All Subject Solved : Click Here...

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

LightBlog

Below Post Ad

LightBlog

AdsG

close